বিয়ের দাওয়াতে “তোমার বিয়ে কবে” বলায় আন্টির দিকে রোস্ট ছুঁড়ে মারল আনিলা

শীতকাল আসলেই চারিদিকে বিয়েশাদির হিড়িক পড়ে যায় তা নিশ্চয়ই সবাই ভালো করেই জানেন। এইসব বিয়েশাদির দাওয়াত আমরা অনেকেই পেয়ে থাকি। কোন দাওয়াত থাকে বাবা-মা এর কলিগ এর ছেলে-মেয়ের, কখনো দাওয়াত থাকে ভার্সিটির বড় ভাই-বোনের। কখনো আবার তা নিজের ভাই-বোন বা কাজিনের-ও হয়।


তো বিয়েশাদির অনুষ্ঠানে যাবেন, সুন্দর করে দুএকটা ছবি তুলবেন, শান্তিমত রোস্ট চাবাবেন, গরু-খাসি গোগ্রাসে গিলবেন সেই সুযোগটাও নাই। মুরুব্বি আর অমুক তমুক আত্নীয়দের প্রশ্নের মুখে টেকাই দায়। আর আপনি যদি ভার্সিটি শেষ বর্ষ পড়ুয়া কিংবা সদ্য গ্রাজুয়েট মেয়ে হয়ে থাকেন, তবে তো কথাই নেই। বিয়েশাদি নিয়ে হাজারটা প্রশ্নে কান ঝালাপালা হয়ে যাবে। আনিলার-ও একই অবস্থা হয়েছিল। কোথাকার কোন আন্টি এসে “বিয়েশাদি কবে করবা? ছেলে কোন এলাকার চাও? প্রেমটেম আছে নাকি?” এসব জিজ্ঞেস করলে মেজাজ কিভাবে ঠিক থাকে? আনিলার-ও থাকেনাই৷ রেগেমেগে সে আধা খাওয়া রোস্ট-ই ওই আন্টির দিকে ছুঁড়ে মারল। ফলে যা হওয়ার তাই হল। এক বিব্রতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হল।

তো আপনাকেও যদি বিয়েশাদির অনুষ্ঠানে কেউ এমন বিরক্তিকর প্রশ্ন করে থাকে, তাইলে আপনিও এভাবে রোস্ট ছুঁড়ে মারতে পারেন। তবে ছুঁড়ে মারার আগে অবশ্যই তা চেখে নিবেন। নিজের রোস্টটা এভাবে বিসর্জন করে দিয়ে পরে লেখককে দায়ী করবেন না। রোস্ট কিন্তু বিয়ের দাওয়াতে একটাই দেয়!!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *