বরের ভার্সিটি র‍্যাগ ডে এর টিশার্ট দেখে ফেলায় বিয়ে ভেঙে দিল কনেপক্ষ

এই বিয়ের সিজনে নিয়মিত-ই আমাদের পরিচিতদের মধ্যে কারো না কারো বিয়ে হচ্ছে। কেউ গ্রাজুয়েটেড হয়ে মোটামুটি চাকরি-বাকরি জুটিয়েই বিয়ে করে ফেলছে, কেউ আবার নিজেকে বেশ খানিকটা প্রতিষ্ঠিত করে তারপর বিয়ের পিঁড়িতে বসছে। তবে যারা সদ্য গ্রাজুয়েট হয়ে চাকরি পেয়েই বিয়ে করতে যাচ্ছে, তাদের জন্য অশনিসংকেত তাদের ভার্সিটি র‍্যাগ ডে এর টিশার্ট। কারণ এই র‍্যাগ ডে এর টিশার্ট এর মধ্যেই ছেলে কিংবা মেয়ের ভার্সিটি লাইফের যাবতীয় কীর্তির কথা তার বন্ধু-বান্ধবরা সাইনপেনের রকমারি কালিতে সুন্দরভাবে তুলে ধরে।


তো সেরকম পোড়া কপাল-ই ছিল শীঘ্রই বিয়ের আসরে বসতে যাওয়া এক ছেলের। মাসখানেক আগে র‍্যাগ ডে পালন করা সেই ছেলেটি তার বিয়ে নিয়ে স্বভাবতই উচ্ছ্বসিত ছিল। কিন্তু বিয়ের হাজারো আয়োজনের দিকে নজর দিতে গিয়ে দুর্ভাগ্যবশত তার নিজের ভার্সিটি র‍্যাগ ডে এর টিশার্ট টাই আড়াল করে রাখা হয়নি। ফলে বিপদ যা ঘটার ঘটে গেল। বিয়ের অনুষ্ঠানের প্রস্তুতির মধ্যেই বিয়েবাড়িতে টিশার্টটি যখন কনেপক্ষের একজন বরের ঘরের এক কোণায় দেখতে পেল, সেই টিশার্টের উপর বরের ফ্রেন্ডদের শিল্পকর্মের বিস্তারিত বিবরণ চলে গেল কনেপক্ষের সবার কাছে। ফলাফল হিসেবে কনেপক্ষ তৎক্ষণাত বিয়ে ভেঙে দিল।


তাই আর দেরি না করে নিজের বিয়ে বাঁচাতে চাইলে আজই নিজের র‍্যাগডে এর টিশার্টকে সুরক্ষিত জায়গায় রাখুন।