বিয়েবাড়িতে সেজেগুজে আসা মেয়েদের ভিড়ের চাপে ভর্তা হয়ে গেল এক ওয়েডিং ফটোগ্রাফার

এমন এক সময় ছিল যখন মানুষ বিয়েবাড়িতে খাওয়া-দাওয়া করতে, বর-কনেকে আশীর্বাদ দিতে যেত। মডার্ন যুগের ঠেলায় আজকাল বিয়ের অনুষ্ঠানের সংজ্ঞাতেই ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে। আজকাল বিয়ের অনুষ্ঠান মানেই আমন্ত্রিত অতিথিদের মাঝে ছবি তোলার হিড়িক পড়ে যায়। তো ছবি তুলবেন ভালো কথা, নিজেদের ফোনের ক্যামেরা আছে, তা দিয়ে তুললেই হয়। কিন্তু তাতেও অনেকে ক্ষান্ত হয়না। তাদের ছবি তুলতে হবে বিয়ের অফিসিয়াল ফটোগ্রাফারদের অত্যাধুনিক ডস্লার ক্যামেরাতে। ফলাফলস্বরুপ সেই ফটোগ্রাফার ব্রাদারদের অবস্থা করুণ আকার ধারণ করে। অমনটাই ঘটল সম্প্রতি এক বিয়ের অনুষ্ঠানে।

স্বাভাবিকভাবেই সেই বিয়েতে ওয়েডিং ফটোগ্রাফাররা বর-কনের ছবি তুলতে ব্যস্ত ছিলেন। কিন্তু এর মধ্যেই সদ্য পার্লার থেকে সেজেগুজে আসা কনের একদল কাজিন ঘিরে ধরল ফটোগ্রাফারকে৷ একেকজন ক্রমাগত বিভিন্ন পোজে, বিভিন্ন এংগেলে অজস্র ছবি তুলতে লাগল। তাদের এই ফটোগ্রাফি সেশন দেখে বিয়েতে উপস্থিত আরো অনেক মেয়ে সেখানে ভিড় করতে লাগল। ফলাফল যা হওয়ার তাই হল। অত্যধিক ভিড়ের চাপে ভর্তা হয়ে গেল মেয়েদের ডিপির চাহিদা মেটাতে ব্যস্ত হয়ে পড়া সেই ওয়েডিং ফটোগ্রাফার।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সেই ফটোগ্রাফার ভাইটি শুশ্রুষা নিচ্ছেন। সবাই উনার জন্য দোয়া করবেন যেন সুস্থ হয়ে তিনি আবারো নারীকূলের আবদার মেটাতে গিয়ে আবারো ভর্তা হতে পারেন।